SahityaCafe

শিহরণ থেকে বলছি

অলোক বিশ্বাস উড়ে আসা ঘুড়ি যারই হাতে পড়ুক…স্বাধীন পুকুরের মাছ যারই ছিপে ধরো…হৃদয়জাত হে কন্যা হে বালক, ভাবো,এরপর কোথা থেকে কী কী ঘটে যেতে পারে…ট্রেনে ওঠার পরে হারিয়েছে টিকিট… হারিয়েছি কিচেনে সমস্ত মশলার কৌটো… আর ওই যেস্বর্গীয় রুমাল যা দিয়ে…

মেঘের কোলে মহুলিয়া

অরুণাভ দাস জুলাইয়ের জলছবিতে হরজাই রঙের প্লাবন। তার সঙ্গে কোথাও রিমঝিম, কোথাও ঝমঝম। কলের শহর অসহ্য মনে হয়। দুবন্ধুতে ঝোলায় ক্যামেরা ও সামান্য কটি পোশাক ভরে নিয়ে বেরিয়ে পড়ি মেঘলোকের পথে। দূরে কোথাও নয়, পাহাড়ের ওপরে নয়। উপত্যকায় দাঁড়িয়ে ঘাড়…

দূরত্ব

আনন্দ সেন শপথ ছিল সঙ্গে যাবার, মদত ছিল শুকতারারজ্যোৎস্নারাতে বিবাগী চাঁদ উস্কানি দ্যায় ঘরছাড়ার। ভালবাসার মাসটা আষাঢ়, মেঘই তখন বারিস্তাস্বপ্ন বিলোয় অকাতরেই, পড়তে কি তুই পারিস তা?    যে সুরগুলো আঙুল ছুঁয়ে, পায়নি খুঁজে মনের তলতাকিয়েছিল বলেই শুধু দেখেছি তার…

পুনর্বার

অমিত সরকার দেবী আজ পুনর্বার ঋতুমতী হয়েছেন  কুমারী ব্যথাদের বিশ্বাস পোড়াতে পোড়াতে সন্ধের ঘোড়ারা নেমে আসছে শ্রবণা নক্ষত্র থেকে নালের প্রচণ্ড শব্দে ছায়াপথ ফেটে ঝরে পড়ছে      প্রাচীনতম ভাষাদের জমাটবাঁধা রক্তধোঁয়া ও আগুনে কেঁপে কেঁপে উঠছে আমলকী বন   নৈশজ্যোৎস্না ছিঁড়ে বেরিয়ে আসছে অন্ধ কাকেরা    আক্রান্ত পাপের আঁচড়ে…

কালব্যাধি

অর্ঘ্য দত্ত ১ বাঁধ ভেঙে গেলে, স্বচ্ছ জলে ভেসে আসে শব ও পুরীষপ্রতিবেশী-বন্ধুরও হাসিতে মিশে যায়চতুর ব্যাধের লোভ এবং উল্লাস… কালব্যাধি এলে, ভাতের থালা কি হবে ভিক্ষাপাত্র ফের! পূজামন্ত্র বেজে উঠবে যাচকের সুরে? সবুজের খোঁজে যারা বারবার পেরিয়ে যায় নতুন সীমানাবাসা আর…

ধ্বংস

অয়ন চৌধুরী হাতের তালু কেটে গেছে জলে বিড়ালের দৃষ্টির ভিতর জমে আছে ঠান্ডা বিস্ময় আর নির্বাণের অন্তিম আকাঙ্খা ঠিক তখনই একটি অন্ধকারের হাওয়া এসে লাগে জানলায় বাইরে জ্যোৎস্নার শরীর, মৃদু স্তন ও ঢেউয়ের মতো মাংসের সুবাস যেকোনো খুনের আগে হাত কাঁপায় ছুরি ফেলে সে দৌড়ে…

সমুদ্র অথবা অবলম্বন

কুবলয় বসু  ১ দুপুরে এখন বাড়িতেই খেতে আসে মাধব। আগে দোকানেই খেয়ে নিত বাড়ি থেকে আনা সকালের তৈরি রুটি-তরকারি। খেয়ে গল্প-গুজব করতে করতে দোকানেই একটু ঘুমিয়ে নিত তারা দু’তিন জন কর্মচারী। সবাই থাকত বলে মাধবও আর বাড়ি ফিরত না। দুপুরে…

তারার মতো উজ্জ্বল চোখ তার

ফারুক আহমেদ একটি ধূসর গোধূলি বিকেল..একটি সাদা বক উড়ে যায় নদীর তীরে- একটা গ্রামের ভিতর দিয়ে পথ হাঁটি,এলোমেলো চুলে জানালায় মুখ রাখে বনলতার মতোই, মূল্যবান তারার মতো, উজ্জ্বল চোখ- কতদিন বাড়ি ফেরেনি যে নাবিক!খোলা আকাশ থেকে তারা খসা দেখে দিন কাটে, রাত…

সংগম

গৌতম মণ্ডল   এসেছে যে তাকে প্রশ্ন কোরো নাসূর্যাাস্তের ছায়ায় তাকে বসতে দাওএকবার সে বসুকনিজেকে নিঃস্ব করে পোড়া আকাশের নীচে দাঁড়াক তারপর কথা হবে সংগম